12.2 C
London
April 14, 2024
TV3 BANGLA
বাংলাদেশ

করোনাকালে ঘুড়ি বিক্রির ধুম

ঘুড়ির পসরা

প্যানডেমিকের পর থেকে ঘরবন্দি লোকেরা উঠে আসছেন ছাদে। ইতালিতে ভবনের ছাদে চলছে গানের কনসার্ট। আরও দেখা যায়, এক ছাদ থেকে অন্য ছাদে ড্রোনের সাহায্যে প্রেম বিনিময়ের দৃশ্য, চলছে ইয়োগা ক্লাস, ড্যান্স ক্লাস। দুই কিশোরী পাশাপাশি ছাদে টেনিস খেলে হয়ে গেছে ভাইরাল। তাদের সঙ্গে খেলার জন্য ছুটে আসেন টেনিস তারকা রজার ফেদেরার নিজেই।

এদিকে বাড়ির ছাদকে যেন ঘুড়ি উড়ানোর স্টেডিয়াম বনিয়ে ফেলেছে ভারত উপমহাদেশের লোকজন। ভারত, বাংলাদেশ ও পাকিস্থানের নীল আকাশের দিকে চোখ বুলালে দেখা যাবে ঘুড়ি উড়ছেই। গ্রামেগঞ্জে ছোট ছোট ছেলে মেয়েরা থেকে শুরু করে যুবক-বৃদ্ধ কেউ বাদ নেই নেশায়। শহরগুলোর ছাদে ছাদে  চলছে ঘুড়িপ্রেমীদের মিলনমেলা। আর একইসঙ্গে করোনা সংকট থাকার পরও ব্যবসায়ে সফলতা দেখছেন ঘুড়ি প্রস্তুতকারক ও বিক্রেতারা।

দিল্লির একজন ঘুড়ি বিক্রেতা মোহাম্মদ আহমদ। গত ১১ বছর ধরে ঘুড়ি বিক্রি করছেন। তিনি জানান, এখনকার মতো এত বিক্রি তিনি আগে কখনো দেখেননি।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের পর থেকে জমজমাট হয়ে উঠতে শুরু করে তার দোকান। ২৫ মার্চ ভারতে লকডাউন ঘোষণার পর তিনি ১ লাখ ৫০ হাজার রুপির ঘুড়ি স্টকে মজুদ করেছিলেন। আর সেগুলো নাকি সন্ধ্যার মধ্যেই স্টক আউট হয়ে যায়।

চীনের ঘুড়ি এবার বাংলাদেশে!

তিনি বলেন, আমি ফোন ধরতে ধরতে করে ক্লান্ত হয়ে গেছি, হঠাৎ করেই প্রত্যেকেরই ঘুড়ির প্রয়োজন। আমি এখনও সারা দেশ, মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, রাজস্থান থেকে ফোন পাচ্ছি। ঘুড়ির এত চাহিদা আমি পূরণ করতে পারছি না।

মোহাম্মদ আহমদের সাক্ষাৎকারটি প্রকাশ হয় বিবিসির এক প্রতিবেদনে।

ঘুড়ি উড়ানো বহু শতাব্দী ধরে ভারতীয় উপমহাদেশের একটি জনপ্রিয় বিনোদন। ঐতিহাসিকরা বলেন, এটি চীনা ভ্রমণকারীদের মাধ্যমে এই অঞ্চলে এসেছিল।

ভিডিও: চায়না এক্সপ্রেস

এটি ভারতে সাধারণত একটি মৌসুমী বিনোদনের মাধ্যম। দেশের বেশিরভাগ অংশে মকর সংক্রান্তি  উৎসবকে ঘিরে ঘুড়ি বেচা কেনা এবং ঘুড়ি উড়িয়ে থাকে। কিন্তু এ বছর করোনাভাইরাস লকডাউন ঘুড়ির বাজারকে ব্যস্ত করে রেখেছে অনেক আগের থেকেই। জুন থেকে আগস্টের শেষের দিকে পর্যায়ক্রমে লকডাউন সহজ হতে শুরু করার পরেও, স্কুল বন্ধ থাকায় এর চাহিদা এখনও বেড়েই চলেছে।

স্বাস্থ্য ও সুরক্ষাই প্রধান উদ্বেগের বিষয় হিসেবে বিবেচনা করলে ঘুড়ি উড়ানো একটি জনপ্রিয় বিনদনের মাধ্যম হতে পারে এই করনাকালে, এমনটাই অভিমত বিজ্ঞদের।

সানজানা ফারিহা

০৩ সেপ্টেম্বর ২০২০
সাফা/এনএইচটি

আরো পড়ুন

বাংলাদেশের সন্তানের আমেরিকা জয়

কক্সবাজার কারাগারে বিদেশি বন্দিকে পিটিয়ে হত্যা

পাসপোর্ট বোর্ডিং পাস ছাড়াই প্লেনে উঠে গেল এক বালক