13.9 C
London
July 22, 2024
TV3 BANGLA
Uncategorized

করোনা ভাইরাস নিয়ে ট্রাম্পের মন্তব্য সমূহ

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সতর্কবার্তা থাকার পরও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কোভিড-১৯ মহামারীকে পাত্তা না দেয়ার অভিযোগ রয়েছে অনেক আগে থেকেই। পরে পরিস্থিতি নাগালের বাইরে চলে গেলে একতরফা চীনকে এর জন্য দায়ী করায় ট্রাম্পের সমালোচনাও হয়েছে অনেক। আর এখন বিশ্বের ক্ষমতাধর রাষ্ট্রের এই প্রধান নিজেই আক্রান্ত হলেন করোনায়।

শুক্রবার (০২ অক্টোবর) টুইটে ডোনাল্ড ট্রাম্প নিজেই তার এবং স্ত্রী মেলানিয়ার করোনা আক্রান্তের তথ্য জানিয়েছেন। এরপরই ইতিহাস ঘেটে দেখা হয়, প্যানডেমিক চলাকালে এ বিষয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের করা মন্তব্যগুলো।

সিবিসি নিউজ সূত্রে জানা যায়, যুক্তরাষ্ট্রে কোভিডের প্রথম লক্ষণ সনাক্ত হয় ২০ জানুয়ারি। ২২ জানুয়ারি ট্রাম্প সাংবাদিকদের বলেছিলেন:

আমাদের হাতে পরিকল্পনা আছে
এবং আমরা মনে করি সেটি খুব ভালোই কাজ করবে।

৩০ জানুয়ারি করোনা ভাইরাসের জন্য ‘পাবলিক হেলথ ইমার্জেন্সি’ ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। একই দিনে মিশিগানে দেওয়া এক বক্তব্যে ট্রাম্প বলেন:

আমরা এটি খুব ভালোভাবে নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রেখেছি। এই মুহূর্তে আমাদের দেশে খুবই সামান্য সমস্যা সৃষ্টি করতে পেরেছে এই ভাইরাস। এদেশে মাত্র পাঁচজন আক্রান্ত হয়েছেন এবং সবাই সুস্থ হয়ে উঠছেন।

৩১ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রে ‘পাবলিক হেলথ ইমার্জেন্সি’ ঘোষণা হয় এবং চীনা ভ্রমণকারীদের উপর বিধিনিষেধ আরোপ হয়। যুক্তরাষ্ট্রে ১১ কোভিড কেস সনাক্ত হওয়ার দিন ৭ ফেব্রুয়ারি ট্রাম্প টুইটারে লিখেন:

আবহাওয়া উষ্ণ হয়ে উঠলে ভাইরাসটি দুর্বল হয়ে পড়েব এবং আশা করছি চলেও যাবে। চীন এ বিষয়ে দুর্দান্ত কাজ করে চলছে তাদের প্রেসিডেন্টের নেতৃত্বে। আমরাও চীনের খুব কাছাকাছি থেকে সহযোগিতারভিত্তিতে কাজ করে যাচ্ছি।

এরপর হোয়াইট হাউজের একটি মিটিংয়েও আবহাওয়া গরম হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ভাইরাসটির সমাপ্তি হবে এমন সিদ্ধান্তে নিশ্চিন্ত থাকতে দেখা যায় মার্কিন প্রেসিডেন্টকে। উল্লেখ্য, গত আগস্টে বিশ্বের সর্বোচ্চ তাপমাত্রার রেকর্ড (৫৪.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস বা ১৩০ ডিগ্রি ফারেনহাইট) হয় যুক্তরাষ্ট্রের ডেথ ভ্যালিতে। এরপরও ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে না আসায় ট্রাম্পের মন্তব্য নিয়ে একদফা সমালোচনা হয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

এছাড়াও ২৭ ফ্রেবুয়ারি হোয়াইট হাউজে আফ্রিকান-আমেরিকান নেতাদের সঙ্গে এক মিটিংয়ে ডোনালন্ড ট্রাম্প বলেন,

একদিন দেখা যাবে যাদুমন্ত্রের মতো ভাইরাসটি অদৃশ্য হয়ে গেছে।

২৯ ফেব্রুয়ারি করোনা ভাইরাসে সেদেশে প্রথম মৃত্যুর খবর প্রচার হয়। এরপরও নিশ্চিন্ত থাকতে দেখা যায় ট্রাম্পকে। আরেকটি মিটিংয়ে তিনি বলেন, বিশ্বের একটি বড় অংশ প্লেন চলাচলের জন্য সম্পূর্ণ নিরাপদ।

সব মন্তব্য ভুল প্রমাণ করে নিজে করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর ট্রাম্প টুইটে জানিয়েছেন, আমরা ইতোমধ্যেই কোয়ারেন্টিনে চলে গেছি। সংক্রমণ সেরে উঠতে শিগগিরই আমরা চিকিৎসা প্রক্রিয়া শুরু করব। এবং আশা করি আমরা শিগগিরই একসঙ্গে করোনা জয় করব।

এর আগের টুইটে তিনি জানান, ট্রাম্পের উপদেষ্টা ৩১ বছর বয়সী হোপ হিক্সের করোনা ভাইরাস পজিটিভ আসার পর তারা উভয়ই কোয়ারেন্টিনে চলে যান।

২ অক্টোবর ২০২০
এনএইচ

আরো পড়ুন

দুবাই ভ্রমণে বাংলাদেশসহ ৫ দেশের নাগরিকদের নতুন নিয়ম

অনলাইন ডেস্ক

প্রধানমন্ত্রী হওয়ার চূড়ান্ত দৌড়ে সুনাক ও ট্রাস

নিউইয়র্কে এক দিনে ৩ বাংলাদেশি তরুণের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক