12.6 C
London
May 18, 2024
TV3 BANGLA
Uncategorized

গ্রিসের মানোলাদায় বাংলাদেশি শ্রমিকদের জন্য হবে আবাসন ও পার্ক

গ্রিসের বাংলাদেশ দূতাবাসে কর্মকর্তাদের বৈঠক (ছবি: সংগৃহীত)

গ্রিসের মানোলাদায় বসবাসকারী প্রবাসী বাংলাদেশি শ্রমিকদের কল্যাণে উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ দূতাবাস এবং গ্রিসের স্থানীয় প্রশাসন।  বাংলাদেশ দূতাবাসের অনুরোধে সেখানকার বাংলাদেশি শ্রমিকদের জীবনযাত্রার মানোন্নয়নের জন্য আবাসন ও পার্কের ব্যবস্থাসহ বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে মানোলাদা প্রশাসন। দেশের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম সূত্রে এ খবর জানা যায়।

পশ্চিম গ্রিসের মানোলাদা নামক স্থানে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক বাংলাদেশি শ্রমিক বসবাস করেন। তারা মূলত গ্রিক কৃষিখামার বিশেষত স্ট্রবেরি এবং তরমুজের খামারে কাজ করেন। এসব শ্রমিকের জীবনযাত্রার মানোন্নয়নের উদ্যোগ নিয়েছে গ্রিসে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস এবং গ্রিসের স্থানীয় সরকার। 

এ বিষয়ে গত বৃহস্পতিবার (২৩ জুলাই) গ্রিসে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. জসীম উদ্দিন সেখানকার মেয়র ইয়ানিস লেন্তাসের সঙ্গে এক বৈঠকে মিলিত হন। 

ভার্দা শহরে অবস্থিত মিউনিসিপালিটি অফিসে অনুষ্ঠিত এ বৈঠকে তারা বাংলাদেশি শ্রমিকদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট সব বিষয়ে আলোচনা করেন। দুই ঘণ্টাব্যাপী বৈঠকে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত উল্লেখ করেন যে মানোলাদায় বসবাসরত বাংলাদেশি শ্রমিকরা গ্রিস ও বাংলাদেশের অর্থনীতিতে ভূমিকা রাখছেন। এ করোনা সংকটের মধ্যেও তারা কঠোর পরিশ্রম করে গ্রিসের কৃষিতে অবদান রাখছেন। শ্রমিকদের অবদানের কথা স্মরণ করে রাষ্ট্রদূত মেয়রকে তাদের জন্য আবাসন, স্বাস্থ্যসহ জীবনযাত্রার মানোন্নয়নে উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানান। 

যেসব বাংলাদেশি অনিয়মিতভাবে এখানে বসবাস করছেন, তাদের গ্রিক সরকারের বৈধ ডকুমেন্টস প্রদানে সহায়তার জন্য‌ও তিনি মেয়রকে অনুরোধ করেন। বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এ বিষয়ে মেয়রকে শ্রমিকদের বাসস্থানসহ আবাসনের অন্যান্য দিক নিয়ে বেশ কিছু ছবি দেখিয়ে এ অবস্থার উন্নয়নে স্থানীয় খামার মালিকদের নিয়ে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানান। 

এর পরিপ্রেক্ষিতে মেয়র ইয়ানিস বাংলাদেশি প্রবাসী শ্রমিকদের আবাসনের জন্য মিউনিসিপালিটি থেকে জমি দেওয়ার আশ্বাস দেন। সেই সঙ্গে তাদের চিত্ত বিনোদনের জন্য বিশেষ পার্ক তৈরি করারও কথা বলেন মেয়র। বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে বৈধভাবে বসবাসরত বাংলাদেশি শ্রমিকরা যেন কৃষিজমি লিজ নিতে পারেন, সে বিষয়ে জটিলতা দূর করতেও মেয়র আশ্বাস দেন। মানোলাদায় বসবাসকারী প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য একটি মসজিদ এবং কবরস্থানের ব্যবস্থা করার বিষয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা হয় এ বৈঠকে। মেয়র এ বিষয়ে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন। 

দুই দেশের নাগরিকদের মধ্যে যৌথ ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করে জনগণ পর্যায়ে যোগাযোগ বৃদ্ধি এবং তাদের মধ্যে বন্ধুত্ব দৃঢ় করার লক্ষ্যে দূতাবাস এবং মিউনিসিপালিটি একযোগে কাজ করতে পারে বলে বৈঠকে আলোচনা হয়। 

বৈঠকে মেয়র মানোলাদায় বসবাসকারী প্রবাসী শ্রমিক এবং বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা যেন স্থানীয় আইন মেনে চলেন, সে বিষয়ে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। রাষ্ট্রদূত এ বিষয়ে প্রবাসীদের সচেতন করতে বিশেষ সচেতনতা কর্মসূচি গ্রহণ করা হবে বলে মেয়রকে জানান। 

বৈঠকে বাংলাদেশের দূতাবাসের কাউন্সেলর (শ্রম) ড. সৈয়দা ফারহানা নুর চৌধুরী এবং কাউন্সেলর সুজন দেবনাথ এবং মেয়র অফিসের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

০২ আগস্ট ২০২০

আরো পড়ুন

Face to Face with Dr Taj Hashmi

করোনাভাইরাস – Coronavirus Health advice

ভারত: করোনা নিয়ে সাম্প্রদায়িক বিতর্ক : আসল সত্য কি?