14 C
London
June 23, 2024
TV3 BANGLA
Uncategorized

টিভিথ্রি বাংলার অনুষ্ঠানে লোকসংগীত নিয়ে যা বললেন দোহারের রাজীব


বিশেষ প্রতিবেদন: লন্ডনে আয়োজিত শাহ আবদুল করিম স্মরণ উৎসবের বিশেষ আকর্ষণ হিসেবে কলকাতা থেকে যুক্ত হয় বিখ্যাত লোক গানের দল দোহার। টিভিথ্রি বাংলার এই লাইভ অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন ছাড়াও নিজেদের গানের দল নিয়ে, লোকসংগীত নিয়ে এবং বাউল সম্রাটকে নিয়ে অনেক কথা বলেন দোহারের সদস্যরা।

অনুপ্রেরণা হিসেবে বাউল সম্রাট শাহ আবদুল করিম সম্পর্কে দোহারের অন্যতম সদস্য রাজীব বলেন, বাউল সম্রাট ২০০৯ সালের ১২ সেপ্টেম্বর মৃত্যুবরণ করেন। ঠিক সেই দিনই কালিকাদা উৎকণ্ঠা নিয়ে জানালেন, বাউল সম্রাটের জন্য কিছু একটা করা উচিত আমাদের। এরপর তার গানগুলো নিয়ে আমরা একটি একক অনুষ্ঠান করি। সেই অনুষ্ঠানের জন্য কালিকাদা একটি গান লিখেন এবং সুর করেন।

আমরা সাধারণত বিভিন্ন লোকশিল্পীদের গান সংগ্রহ করে পরিবেশন করি। নিজেদের লেখা বা কম্পোজ করা গান দোহার করে না। কিন্তু এই গানটি কেবলই শাহ আবদুল করিমকে শ্রদ্ধা জানিয়ে লিখা এবং সুর করা। আজ সেই গানটিই আজ টিভিথ্রির দর্শকশ্রোতাদের সামনে পরিবেশন করেছি আমরা। গানটি করতে পেরে আমরা খুবই আনন্দিত।

কালিকা প্রসাদের হাত ধরে প্রতিষ্ঠার শুরু থেকেই ভাটি অঞ্চলের লোকসংগীতের প্রচন্ড প্রভাব দোহারের মাঝে বিদ্যমান। এ প্রসঙ্গে রাজীব বলেন, ব্যক্তিগত দিক থেকে আমি এবং কালিকা প্রসাদ হচ্ছি এমন একটি অঞ্চলের মানুষ যাকে বলা হয় বরাক উপত্যকা বা ভাষা শহীদদের পুণ্যভূমি। ১৯৬১ সালে আসামের এ অঞ্চলে ১১ জন মাতৃভাষার জন্য প্রাণ দিয়েছিলেন।

১৯৯৯ সালে দোহারের জন্ম। কালিকাদার এক কাকা ছিলেন অনন্ত ভট্টাচার্য্য। লোকসঙ্গীতের বিপুল সংগ্রহ ছিল তার। বিশেষ করে ভাটি অঞ্চল বলতে আমরা যা বুঝি ময়মনসিংহ, সিলেট এবং আসামের বরাক উপত্যকার বিস্তির্ণ অঞ্চলের গান নিয়ে তার সংগ্রহশালা। এগুলো নিয়েই আমাদের যাত্রা শুরু।

একটা কথা আমরা বারবার বলি, দোহার কোনো ‘ব্যান্ড’ না। আমরা হচ্ছি গানের দল। কারণ দোহার লোকশিল্পীদের গান গায় এবং এই গানগুলো মানুষের কাছে পৌঁছে দেয়। যেসময় আধুনিক বাদ্যযন্ত্র অনেক বেশি জনপ্রিয়, ঠিক ওই সময় দোহার দেশীয় বাদ্যযন্ত্র নিয়ে পথ চলতে শুরু করে।

অনেকেই আমাদের এই বৈশিষ্ট্যটি নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন। কিন্তু কালিকাদার নেতৃত্বে আমরা পথভ্রষ্ট হইনি। বেশ কিছুদিন পর দেখা গেল আমাদের এই গানগুলো মানুষ শুনছে, বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের শ্রোতারা আমাদের গান ভালোবাসছেন। কারণ আমাদের মনে বিশ্বাস ছিল, ভাটি অঞ্চলের লোকশিল্পীদের সংগীত ও সুর এতইটাই শক্তিশালী যে, এই গানগুলো নিয়েও আধুনিক বাদ্যযন্ত্রের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় টিকে যাব আমরা।


দোহারের বাকি সদস্যদের পক্ষ থেকে রাজীব বলেন, বিলেতের এ আয়োজনে যুক্ত হতে পেরে আমাদের খুব আনন্দ লাগছে। আমাদের কালিকা প্রসাদের গুরু হচ্ছেন বাউল শাহ আবদুল করিম। তার স্মরণে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে যুক্ত হতে পেরে আমরা খুবই ভাগ্যবান।

শনিবার (১২ সেপ্টেম্বর) অনুষ্ঠিত এ আয়োজনে যুক্ত হন গানের দল দোহারের রাজীব, নিরঞ্জন, সত্যজিৎ, অমিত, সৌম্য, প্রমুখ।


১২ সেপ্টেম্বর ২০২০
নওশাদ হক, টিভিথ্রি বাংলা
এনএইচটি

আরো পড়ুন

দেশে সর্বোচ্চ করোনা শনাক্ত, আরও ১৯৯ জনের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক

৮টি অভ্যাস আপনার বার্ধক্যকে ত্বরান্বিত করবে

ট্রাফিক আইনে ব্যাপক পরিবর্তন, চালকদের মাঝে ক্ষোভ

অনলাইন ডেস্ক