1. robin.nasif@live.com : নিউজ ডেস্ক :
  2. farjulcreative@gmail.com : নিউজ ডেস্ক : Farjul Islam
  3. mh2mukul@gmail.com : নিউজ ডেস্ক : M Moinul Hossain
  4. nh.tiash@gmail.com : Nawshad Tiash : Nawshad Tiash
৮টি অভ্যাস আপনার বার্ধক্যকে ত্বরান্বিত করবে TV3 BANGLA
বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

৮টি অভ্যাস আপনার বার্ধক্যকে ত্বরান্বিত করবে

লন্ডন ডেস্ক
  • বুধবার, ৩ আগস্ট, ২০২২
  • ২৫২

বার্ধক্য এড়ানোর কোনো উপায় নেই। কিন্তু অকাল বার্ধক্য মোটেই কাম্য নয়। কারণ এই বার্ধক্যে উপনীত হবার সাথে সাথে বহু রোগ বাসা বাঁধতে শুরু করে দেহে।

 

বিজ্ঞানীরা মানুষের জীবনযাপনের ৮টি অভ্যাসকে চিহ্নিত করেছেন যা বার্ধক্যকে ত্বরান্বিত করে:

 

১. মদ্যপান

অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির একটি নতুন গবেষণায় দেখা যায় অ্যালকহোল ডিএনএ ক্ষতিগ্রস্ত করার মাধ্যমে বার্ধক্য ত্বরান্বিত করে। ২৫ হাজার লোকের উপর চালানো এই গবেষণা বলে, সপ্তাহে ১৭ ইউনিট অ্যালকহোল গ্রহণকারীদের টেলোমেরেস নামের একটি উপাদানের দৈর্ঘ্য কম হতে গেছে। গবেষণার প্রধান ডা. আনিয়া টপিওয়ালা বলেন: “টেলোমেরেস খাটো হওয়া মানে জৈবিক বার্ধক্য বেশি। এরফলে বয়সকালীন রোগ যেমন আলঝেইমার, ক্যান্সার এবং হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ে৷

 

২. সূর্য
বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে সূর্যের আলো ত্বকের বয়স বাড়াতে পারে। ২০১৩ সালের একটি ফরাসি গবেষণায় দেখা গেছে, ইউভি এক্সপোজার মুখমণ্ডলের বার্ধক্য দেখা দেয়ার জন্য ৮০% দায়ী।

 

৩. অনেক বেশি বসে থাকা

অনেক বেশি বসে থাকলে পেশীর ক্ষতি হয়। গবেষকরা বলেন, ৩৫ বছর বয়সের পর থেকে লোকেরা প্রতি বছর দেহের মোট ভরের ১ শতাংশ পেশী হারায়। এরফলে বাড়ার সাথে সাথে অস্টিওপোরোসিস, দুর্বলতা এবং নিতম্বের ফাটলের মতো চোটের ঝুঁকি তৈরি হয়। তাই গবেষকরা হাঁটা, সাঁতার, ব্যায়াম ও খেলাধুলার পরামর্শ দেন। এমনকি ডেস্কে দাঁড়িয়ে কাজ করলেও পায়ের পেশী শক্তিশালী হয়।

 

৪. ধূমপান
মনে করা হয় ধূমপান কোলাজেনের উৎপাদনকে প্রভাবিত করে। এই প্রোটিন ত্বককে সুস্থ ও স্থিতিস্থাপক রাখে। বয়স বাড়ার সাথে সাথে আমাদের শরীর কম কোলাজেন উৎপন্ন করে, যার কারণে ত্বক ঝুলে পড়তে শুরু করে। ধূমপান এই প্রক্রিয়াটিকে ত্বরান্বিত করতে পারে, যার ফলে অকাল বার্ধক্য হয়।

 

৫. খারাপ খাদ্যাভ্যাস
শাকসবজি, মটরশুটি, শস্য এবং ফলের মতো ফাইবার সমৃদ্ধ খাবারগুলি দীর্ঘ টেলোমেরেস এবং উন্নত জীবনকালের সাথে সম্পৃক্ত। ফাইবার একটি গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টি, যা রক্তে শর্করাকে নিয়ন্ত্রণ করতে, কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে এবং স্বাস্থ্যকর অন্ত্রের বায়োম বজায় রাখতে সহায়তা করে। সুতরাং, অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস বার্ধক্যকে ত্বরান্বিত করে।

 

৬. অনেক বেশি মানসিক চাপে থাকা
দীর্ঘমেয়াদী মানসিক চাপ খাটো টেলোমেরেসের সাথে যুক্ত। গভীর শ্বাস, মননশীলতা, ধ্যান এবং যোগব্যায়ামের মতো শিথিলকরণ থেরাপিগুলি এই সমস্যা থেকে সাহায্য করতে পারে।

 

৭. ভিটামিন এড়িয়ে যাওয়া
বার্ধক্যজনিত প্রভাব কমাতে সাহায্য করার জন্য ভিটামিন ডি একটি গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টি উপাদান। একটি সমীক্ষা অনুসারে, একটি ওমেগা-৩ সম্পূরক গ্রহণ করলে টেলোমেরের দৈর্ঘ্য বৃদ্ধি পেতে পারে।

 

৮. ঘুমের অভাব
ছোট টেলোমেরেস পর্যাপ্ত ঘুম না হওয়ার সাথে জড়িত। ঘুমের স্বল্পতা ব্যায়াম না করা, চিনি ও চর্বিযুক্ত খাবার খাওয়ার মতো অস্বাস্থ্যকর আচরণের সম্ভাবনাও বাড়িয়ে দেয়, যা রোগের ঝুঁকি বাড়ায়।

 

৩ আগস্ট ২০২২
এনএইচ

Leave a Reply

আরও পড়ুন...

ফেসবুকে আমরা…

আর্কাইভ