1. robin.nasif@live.com : নিউজ ডেস্ক :
  2. farjulcreative@gmail.com : নিউজ ডেস্ক : Farjul Islam
  3. mh2mukul@gmail.com : নিউজ ডেস্ক : M Moinul Hossain
  4. nh.tiash@gmail.com : Nawshad Tiash : Nawshad Tiash
ইংল্যান্ডে ওমিক্রনে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে TV3 BANGLA
রবিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ১২:৫৭ অপরাহ্ন
সর্বশেষ খবর
যুক্তরাজ্যের আবহাওয়ার পূর্বাভাস: এ মাসের শেষে ভারী তুষারপাতের আশংকা ব্রিটেনের ইতিহাসের প্রথম মুসলিম মন্ত্রী বর্ণবাদের শিকার অ্যাসাইলামপ্রার্থীদের অধিকার রক্ষায় ইইউ-এর নতুন দপ্তর মর্টগেজ ভ্যালুয়েশন কি এবং এটি কিভাবে কাজ করে? যুক্তরাষ্ট্রে বেপরোয়া গুলির আঘাতে নিহত ব্রিটিশ বিজ্ঞানী উইল না থাকলে অপুত্রক বাবার সম্পত্তির উত্তরাধিকারী মেয়ে: ভারতের সুপ্রিম কোর্ট মাঝ সাগরে নৌকাতে সন্তান জন্ম দিলেন অভিবাসী মা বছরে ৪ লাখ বিদেশি শ্রমিক নেবে জার্মানি জোকোভিচের মালিকানায় তৈরি হচ্ছে কোভিডের ওষুধ অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্স এখন বিশ্বব্যাপী মৃত্যুর অন্যতম কারণ

ইংল্যান্ডে ওমিক্রনে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে

অনিক আজাদ
  • রবিবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ২১৪

ইউকে হেলথ সিকিউরিটি এজেন্সি (এইচএসএ) জানায়, ইংল্যান্ডে ওমিক্রন ভেরিয়েন্টের নতুন করে আরও ৭৫টি কেস পাওয়া গেছে এবং তাদের সংক্রমিত হওয়ার ছিল লক্ষণগুলো সামান্য।

 

ওয়েলসে প্রথম সংক্রমিত হওয়ার পর থেকে এখনপর্যন্ত ইংল্যান্ডে মোট ১০৪ এবং যুক্তরাজ্যের মোট ১৩৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

 

এইচএসএ ঝুঁকি মূল্যায়ন করে, সংক্রমণের তীব্রতার জন্য ওমিক্রন ভেরিয়েন্টকে “লাল” এবং মানুষের মধ্যে সংক্রমণযোগ্যতার জন্য “অ্যাম্বার” বলে আখ্যায়িত করেছেন। এই ভেরিয়েন্টটি সর্ব প্রথম দক্ষিণ আফ্রিকায় সনাক্ত হয়।

 

এইচএসএ বলেছে যে ইংল্যান্ডে ওমিক্রন ভেরিয়েন্টটি পূর্ব মিডল্যান্ডস, পূর্ব ইংল্যান্ড, লন্ডন, উত্তর-পূর্ব, উত্তর-পশ্চিম, দক্ষিণ পূর্ব, দক্ষিণ পশ্চিম এবং পশ্চিম মিডল্যান্ডে সনাক্ত হয়েছে। এইচএসএ এটি স্বীকার করেছে যে, এই ভেরিয়েন্ট সম্পর্কে কোন সিদ্ধান্তে পৌঁছানোর জন্য এখনও পর্যন্ত পর্যাপ্ত তথ্য তাদের কাছে নেই।

 

স্কটল্যান্ডে মোট ২৯ জন এবং উত্তর আয়ারল্যান্ড এখনও কোনও শনাক্তের রেকর্ড পাওয়া যায়নি।

 

এইচএসএ এর প্রধান নির্বাহী ডক্টর জেনি হ্যারিস বলেছেন, ফোকাসড কন্টাক্ট ট্রেসিংয়ের মাধ্যমে সনাক্তকরণ বৃদ্ধির ফলে ওমিক্রন ভেরিয়েন্ট আরও বেশি শনাক্ত ও নিশ্চিত করা সম্ভব হয়েছে। রোগের তীব্রতা বা ভ্যাকসিনের কার্যকারিতার উপর আরও প্রমাণ সংগ্রহ করতে আমরা দ্রুত সম্ভব কাজ করছি এবং জনগণের স্বাস্থ্যের ঝুঁকি বিবেচনায় সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করেছি।

 

এইচএসএ একটি বিশ্লেষণে দেখা গেছে, ইংল্যান্ডে যে ২২ জন ব্যক্তি ওমিক্রন চিহ্নিত হয়েছে তার মধ্যে ১২ জন ব্যক্তি দুটি ডোজ ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছিলেন, দুজনের ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ ছিল, ছয়জনের ভ্যাকসিন দেওয়া হয়নি এবং দুইজনের  ক্ষেত্রে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

 

এনএইচএ ইংল্যান্ড বুস্টার প্রোগ্রামটি ১৩ ডিসেম্বরের মধ্যে চালু হবে এমন খবরে লোকেরা বুকিং পেতে লড়াই করছে। সরকার ঘোষণা করেছে, শুধু প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য একটি বুস্টারের অফার করা হয়েছে। তবে বুকিং পরিষেবা এখনও আপডেট করা হয়নি।

 

শুক্রবার প্রকাশিত স্বাস্থ্য পরিষেবার একটি চিঠিতে জানা যায়, বুকিং প্রক্রিয়াটি আপডেট করা হবে এবং অবশ্যই তা ১৩ ডিসেম্বরের মধ্যে হবে এবং বয়স্ক, প্রাপ্তবয়স্ক এবং ঝুঁকিপূর্ণ গোষ্ঠীর মধ্যে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ভ্যাকসিন বিতরণ করা হবে। যদিও সাম্প্রতিক পরিসংখ্যানগুলোতে দেখা যায় কোভিড -১৯ সংক্রমণ যুক্তরাজ্যের চারটি দেশেই বেড়েছে।

 

অফিস ফর ন্যাশনাল স্ট্যাটিস্টিকস (ওএনএস) এর অনুমান অনুসারে,  ২৭ নভেম্বর এর এই সপ্তাহে ইংল্যান্ডের প্রতি পরিবারের ৬০ জনের মধ্যে একজনের কোভিড -১৯ ছিল যা আগের সপ্তাহে ৬৫ জনের মধ্যে একজন ছিল।

 

৫ ডিসেম্বর ২০২১
এএ/এনএইচ

Leave a Reply

আরও পড়ুন...

ফেসবুকে আমরা…

আর্কাইভ