18.5 C
London
July 23, 2024
TV3 BANGLA
যুক্তরাজ্য (UK)

গাজায় ইসরায়েলি হামলায় জিম্মি ব্রিটিশ নাগরিক নিহতঃ হামাস

ইসরায়েলি বিমান হামলায় গাজায় হামাসের হাতে জিম্মি এক ইসরায়েলি-ব্রিটিশ নাগরিক মারা গিয়েছেন। এক ভিডিওতে হামাসের সশস্ত্র শাখা আল-কুদস ব্রিগেড এ তথ্য জানিয়েছে। ওই ব্রিটিশ বংশোদ্ভূত ইসরায়েলি গত ৭ অক্টোবর থেকে হামাসের জিম্মায় ছিলেন। সৌদি আরবের সংবাদমাধ্যম আরব নিউজের প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

ইসরায়েলি হামলায় নিহত হওয়া ওই ব্রিটিশ বংশোদ্ভূত ইসরায়েলি নাগরিকের নাম নাদাভ পপলওয়েল। গতকাল শনিবার ইজ্জুদ্দিন আল-কাসাম ব্রিগেড ১১ সেকেন্ডের একটি ভিডিও ক্লিপ প্রকাশ করে। যেখানে বন্দী নাদাভ পপলওয়েলকে জীবিত এবং নিজের পরিচয় দিতে দেখা গেছে।

ভিডিওতে সাদা টি-শার্ট পরা এক ব্যক্তি নিজেকে দক্ষিণ ইসরায়েলের কিব্বুৎজ নিরিমের বাসিন্দা ৫১ বছর বয়সী পপলওয়েল হিসাবে পরিচয় দেন। তার চোখের আশপাশে কালো দেখা গেলেও তার শরীরে আঘাতের কোনো চিহ্ন দেখা যায়নি। এ সময় ভিডিওতে আরবি ও হিব্রু ভাষায় লেখা ভাসতে থাকে এবং নেপথ্যে উচ্চারিত হতে থাকে, ‘সময় ফুরিয়ে আসছে। আপনার সরকার মিথ্যা বলছে।’

প্রকাশিত ভিডিওতে হামাস দাবি করেছে যে, পপলওয়েল ইসরায়েলি হামলায় অনেক আগেই আহত হন এবং পরে শনিবার মারা যান। আল-কাসাম ব্রিগেডের মুখপাত্র আবু উবাইদা এক পৃথক বিবৃতিতে বলেন, ‘নাদাভ পপলওয়েল একজন ব্রিটিশ নাগরিক। যিনি এক মাস আগে ইহুদিবাদী রাষ্ট্রের (ইসরায়েলের) বিমান হামলার কারণে গুরুতর আহত হয়ে আজ (১১ মে) মারা গেছেন। তার স্বাস্থ্যের ব্যাপক অবনতি হয়েছিল। কারণ তিনি নিবিড় চিকিৎসাসেবা পাননি। কারণ শত্রুরা গাজা উপত্যকা হাসপাতাল ধ্বংস করেছে।’

ইসরায়েলি সামরিক মুখপাত্র রিয়ার অ্যাডমিরাল ড্যানিয়েল হ্যাগারি এক সংবাদ সম্মেলনে পপলওয়েলের কথা উল্লেখ না করে জানান, ইসরায়েলি সেনারা এখনো জিম্মিদের বাড়ি ফিরিয়ে আনতে চাইছে। তিনি বলেন, ‘যুদ্ধক্ষেত্রে প্রতিটি যোদ্ধা ও কমান্ডার জিম্মিদের কল্পনা করেন, তাদের দেখেন, তাদের কথা ভাবেন এবং তাদের বাড়িতে ফিরিয়ে আনার জন্য প্রতিনিয়ত সর্বোচ্চটা দিয়ে লড়াই করে যাচ্ছেন।’

সূত্রঃ আরব নিউজ

এম.কে
১২ মে ২০২৪

আরো পড়ুন

ভেঙ্গে পড়তে পারে যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্ট ভবন

তদন্ত শুরু: সৌদি প্রিন্সকে অনুদানের বিনিময়ে সম্মাননা দেয়ায় অভিযুক্ত প্রিন্স চার্লস চ্যারিটি

অনলাইন ডেস্ক

ইউকে ব্যালটে ইন্ডিয়ান ইয়াং প্রফেশনাল স্কিম ভিসা ব্যবস্থা চালু