15.7 C
London
June 18, 2024
TV3 BANGLA
সারাদেশ

মাস্ক থুতনিতে রেখে ঘুরলে ডাবল জরিমানা!

করোনার ভ্যাকসিন বাজারে না আসা পর্যন্ত ভাইরাসটি নিয়ন্ত্রণে রাখতে মাস্কই একমাত্র ভরসা। তবে অনেকের মধ্যেই মাস্ক ব্যবহারে রয়েছে অনীহা। এ অবস্থায় মাস্ক পরা নিশ্চিত করতে মাঠে নেমেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। তবে সাধারণ মানুষ মাস্ক ঘরে রেখে বাইরে এসে নানা অজুহাত শোনাচ্ছেন প্রশাসনকে। কিছু মানুষ মাস্ক পরলেও সেটা তারা থুতনিতে রেখে দিচ্ছেন।

 

র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট বলেন, সচেতনভাবে বিষয়টি অবহেলা করার জন্য এই ধরনের মানুষজনের দ্বিগুণ জরিমানা করা হচ্ছে।

 

বুধবার (২ ডিসেম্বর) সময় সংবাদের প্রতিবেদনে বলা হয়, রাজধানীর যাত্রাবাড়ী চৌরাস্তা মোড়ে দুপুর ১২টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত র‌্যাব-১০-এর তত্ত্বাবধানে অভিযান পরিচালনা করেন র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু। অভিযানে ৩০ জন ব্যক্তিকে মাস্ক না পরার জন্য ২০০ থেকে ৫০০ টাকা পর্যন্ত জরিমানা করেছেন এই আদালত। এ ছাড়া অভিযানে ৬০০-৭০০ মাস্ক পথচারীদের মধ্যে বিতরণ করা হয়।

 

অভিযান চলাকালীন পলাশ বসু সাংবাদিকদের বলেন, আগের যে কোনও সময়ের চেয়ে মাস্ক ব্যবহার করা বেড়েছে বলা যায়। এখন অনেকেই সচেতন হয়েছেন। আমরা এই সচেতনতা ওপরে আরও জোর দিচ্ছি। তবে একটা পর্যায়ে গিয়ে যদি তাদের সঙ্গে পেরে ওঠা না যায়, সেক্ষেত্রে জরিমানা বাড়িয়ে অভিযান আরও কঠোর করা হবে।

 

র‌্যাবের এই নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বলেন, নানা অজুহাত দিয়ে কিছু মানুষ মাস্ক ছাড়াই ঘর থেকে বের হচ্ছেন। আবার একশ্রেণির মানুষকে পাবেন যারা মাস্ক পরলেও সেটি থুতনিতে ঝুলিয়ে রাখছে। এমনও কিছু মানুষজনের জরিমানা করা হচ্ছে। তবে স্বাভাবিক জরিমানার চেয়ে এদের জরিমানা ডাবল করা হচ্ছে।

 

ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু বলেন, এখানে জরিমানা করাটাই আমাদের মূল উদ্দেশ্য না। আমরা সাধারণ মানুষকে সচেতন করতে চাই। যেন তাদের মাধ্যমে অন্য কারও মধ্যে এই ভয়াবহ ভাইরাস ছড়িয়ে না পড়ে। তারাও যেন নিরাপদ থাকতে পারেন।

 

এই অভিযানে নানা শ্রেণিপেশার ৩০ জনকে জরিমানা করা হয়েছে। আদালতের মুখোমুখি হয়ে তারা নানা অজুহাত দিচ্ছেন।

 

সূত্র: সময় সংবাদ
০২ ডিসেম্বর ২০২০
নিউজ ডেস্ক

আরো পড়ুন

বাংলাদেশের জনসংখ্যা এখন ১৬ কোটি ৫১ লাখ

আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পাচ্ছে ফজলি আম ও বাগদা চিংড়ি

দিনে বিদ্যুৎ বন্ধের কোনো সিদ্ধান্ত সরকার নেইনি: তথ্যমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক