1. robin.nasif@live.com : নিউজ ডেস্ক :
  2. sanjanafariha@gmail.com : Fariha : Sanjana Fariha
  3. farjulcreative@gmail.com : নিউজ ডেস্ক : Farjul Islam
  4. mh2mukul@gmail.com : নিউজ ডেস্ক : M Moinul Hossain
  5. nh.tiash@gmail.com : Nawshad Tiash : Nawshad Tiash
বন্ধ হয়ে গেছে বহু ব্রিটিশ রেস্তোরাঁ TV3 BANGLA
শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৮:১৫ অপরাহ্ন
সর্বশেষ খবর
বাবা দিবসে জাতির পিতাকে শ্রদ্ধা নিবেদন করে গাইবেন গৌরি চৌধুরী মার্কিন টেক জায়ান্টদের আধিপত্য কমাতে ফেডারেল ট্রেড কমিশনের নতুন প্রধান লিনা খান হাসপাতালের বেড বাসায় নেওয়ার সময় জনতার হাতে আটক চিকিৎসক যুক্তরাজ্যের তহবিল কমানোর সিদ্ধান্ত ‘বিপর্যয়কর’: ব্র্যাক যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে গাজায় আবারও ইসরাইলের বিমান হামলা সিলেটে মা ও দুই শিশুকে গলা কেটে হত্যা দেশে জনসন অ্যান্ড জনসনের করোনার ভ্যাকসিন অনুমোদন আইসিসে যোগদানের সময় ‘বোকা শিশু’ ছিলাম: শামীমা বেগম ব্রিটিশ অর্থমন্ত্রীর শ্বশুরের বিরুদ্ধে সাড়ে ৫ মিলিয়ন পাউন্ড কর ফাঁকির অভিযোগ যুক্তরাজ্য ও অস্ট্রেলিয়ার নতুন বাণিজ্য চুক্তি

বন্ধ হয়ে গেছে বহু ব্রিটিশ রেস্তোরাঁ

সানজানা ফারিহা
  • রবিবার, ১৬ মে, ২০২১
  • ৪৮৭

যুক্তরাজ্যের অর্থনীতি পুনরায় সচল হচ্ছে। যুক্তরাজ্যের বেশিরভাগ মানুষ পাব এবং রেস্তোঁরায় ভিতরে বসে খাওয়ার অনুমতি পাবে সোমবার (১৭ মে) থেকে। তবে যুক্তরাজ্যবাসী তাদের কিছু প্রিয় রেস্তোঁরা খুঁজে পাবেন না আর।

 

সর্বশেষ জরিপে দেখা গেছে গত এক বছরে হাজার হাজার রেস্তোঁরা বন্ধ হয়ে গেছে। ব্রিটেন জুড়ে, মহামারির কারণে ৯.৭ শতাংশ রেস্তোঁরা এবং ১৯.৪ শতাংশ ক্যাজুয়াল ডাইনিং স্থানগুলো বন্ধ হয়ে গেছে।

 

সিজিএ এবং অ্যালিক্স পার্টনার্সের সর্বশেষ বাজার পুনরুদ্ধার মনিটরের তথ্য থেকে জানা যায়, অনেক পাব এবং রেস্তোঁরা মহামারি থেকে বাঁচতে লড়াই করছে। তবে রেস্তোঁরাগুলোর অবস্থা সবচেয়ে খারাপ হয়েছে। এর মধ্যে ওয়েলসের নিউপোর্টে ওসকার আলির মতো স্থান রয়েছে।

 

ওসকর এবং তার স্ত্রী তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠা করতে কয়েক হাজার পাউন্ড বিনিয়োগ করেছেন। তারা বলেন, আমাদের অনেক নিয়মিত গ্রাহক ছিল, কিন্তু করোনা এত দ্রুত ছড়িয়ে পরায় আমাদের রেস্তোঁরা বন্ধ করতে হয়েছে।

 

সিজিএ এবং অ্যালিক্স পার্টনাররা গত ১৩ মাসের পাব এবং রেস্তোঁরাগুলোতে অ্যালকোহল সরবরাহের লাইসেন্স রাখার সংখ্যা জরিপ করেছে। তারা বলেন, ব্রিটেনের রেস্তোঁরা খাতের তুলনায় পাবের অবস্থা কিছুটা ভাল। খাবার পরিবেশনকারী পাবগুলোর সংখ্যা হ্রাস পেয়েছে ৪.২ শতাংশ। বার এবং পাব যেগুলো কেবল পানীয় পরিবেশন করে সেগুলো ৫.২ শতাংশ কমেছে।

 

অ্যালিক্স পার্টনার্সের ম্যানেজিং ডিরেক্টর গ্রিম স্মিথ বলেন, পাবগুলোর তুলনায় রেস্তোঁরাগুলোর মূল চ্যালেঞ্জ হল, রেস্তোঁরাগুলোকে ব্যবসার জন্য জায়গা লিজ দেওয়া হয়। যখন তাদের উপার্জন বন্ধ হয়ে যায় তবুও তাদের বিলগুলো অব্যাহত থাকে, যদি না তারা তাদের বাড়িওয়ালাদের সাথে কোনো চুক্তিতে পৌঁছায়।

 

দুর্ভাগ্যক্রমে, অনেক রেস্তোঁরার জন্য ভাড়া দেওয়া এবং ব্যবসায়ের অন্যান্য ব্যয় বহন এই লকডাউনের সময়কালে চালিয়ে যাওয়া খুবই কঠিন ছিল। তাই তারা আর ব্যবসা চালিয়ে যেতে না পেরে বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়েছে।

 

 

সূত্র: বিবিসি
১৬ মে ২০২১
এসএফ

Leave a Reply

আরও পড়ুন...

ফেসবুকে আমরা…

আর্কাইভ