1. robin.nasif@live.com : নিউজ ডেস্ক :
  2. farjulcreative@gmail.com : নিউজ ডেস্ক : Farjul Islam
  3. mh2mukul@gmail.com : নিউজ ডেস্ক : M Moinul Hossain
  4. nh.tiash@gmail.com : Nawshad Tiash : Nawshad Tiash
বিশ্ব মানব পাচার প্রতিরোধ দিবস আজ TV3 BANGLA
শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৩০ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ খবর

বিশ্ব মানব পাচার প্রতিরোধ দিবস আজ

টিভিথ্রি ডেস্ক
  • শুক্রবার, ৩০ জুলাই, ২০২১
  • ৯০

৩০ জুলাই বিশ্ব মানবপাচার বিরোধী দিবস। ২০১৩ সালের ১৮ ডিসেম্বর জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদ এক প্রস্তাবের মাধ্যমে প্রতি বছর ৩০ জুলাই দিনটিকে বিশ্ব মানবপাচার বিরোধী দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেয়।

 

জাতিসংঘের প্রস্তাবে বলা হয় যে, মানব পাচারের শিকার ব্যক্তিদের অবস্থা সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াতে এবং তাদের অধিকারগুলোর প্রচার ও সুরক্ষার লক্ষ্যে এমন একটি দিবসের প্রয়োজন ছিল। এছাড়াও বাংলাদেশ সরকার সম্প্রতি প্রকাশিত ‘মানব পাচার প্রতিরোধে জাতীয় কর্মপরিকল্পনা ২০১৫-২০১৭’তে  দিবসটি উদযাপন করার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেছে।

 

এবার দিবসটির মূল প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘ভিকটিমের কণ্ঠস্বর আমাদের পথ দেখায়।’ বাংলাদেশ থেকে বছর কত মানুষ ভিকটিম হয়ে পাচারের শিকার হয় তার কোনো পরিসংখ্যান কখনোই পাওয়া যায়নি। সম্প্রতি রংপুর, সিলেট, ময়মনসিংহ ও চাঁদপুর জেলায় খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, চলতি বছর রংপুরে মানব পাচারের অভিযোগে মামলা হয়েছে ৩৫টি। সিলেটে ৩৯৮ জন নিখোঁজের জিডি হওয়ার পর খোঁজ মিলেছে ৩২৯ জনের। খোঁজ মেলেনি ৬৩ জনের। ময়মনসিংহে ৫৬৬ জন নিখোঁজের জিডি ও মামলা হয়। খোঁজ মিলিছে ৪৩৩ জনের। খোঁজ পাওয়া যায়নি ১৩৩ জনের। চাঁদপুর জেলায় ৪১৩ জন নিখোঁজের অভিযোগ পাওয়ার পর পুলিশ সন্ধান পেয়েছে ৩৯৮ জনের। নিখোঁজ আছেন ১৯ জন। দেশের অন্যান্য জেলাতেও বিপুল সংখ্যক মানুষ নিখোঁজ ও নিরুদ্দেশ থাকার তথ্য জানিয়ে থানায় জিডি বা মামলা করা হয়েছে। যার বড় একটি অংশ মানব পাচারের শিকার হয়েছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

 

পুলিশের তথ্য অনুযায়ী, দেশের সর্বত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে পাচারকারীদের দালাল চক্র। দেশ থেকে বেশি পাচার হয় ভারত, সংযুক্ত আরব আমিরাত, মালয়েশিয়া, ইতালি, ফ্রান্স, জার্মানি, অস্ট্রেলিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রসহ কয়েকটি দেশে। এর মধ্যে সর্বাধিক নারী পাচার হয় ভারত, সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাই ও মালয়েশিয়ায়।

 

মানব পাচারে ব্যবহৃত রুট সম্পর্কে জানা যায়, কলকাতা-দুবাই-মিসর-ত্রিপোলি হয়ে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইতালি, বাংলাদেশ থেকে বসনিয়া-ক্রোয়েশিয়া- স্লোভেনিয়া হয়ে ইতালি, আজারবাইজান-তুরস্ক-গ্রিস হয়ে ইতালি, গ্রিস থেকে মেসিডোনিয় কিংবা গ্রিস থেকে আলবেনিয়া ও কসোভো, মন্টিনিগ্রো, বসনিয়া অ্যান্ড হার্জেগোভিনা হয়ে সার্বিয়া। সার্বিয়া থেকে দুই ভাবে ইতালি যায়। প্রথমে স্পেন, ফ্রান্স, পর্তুগালসহ সেনজেনের অন্তর্ভুক্ত দেশে প্রবেশ করে। আবার হাঙ্গেরির সঙ্গে সরাসরি সার্বিয়ার সীমান্ত সংযোগ রয়েছে। অন্যটি হচ্ছে সার্বিয়া থেকে ক্রোয়েশিয়া হয়ে স্লোভেনিয়া। এ ছাড়া বসনিয়া অ্যান্ড হার্জেগোভিনা কিংবা মন্টিনিগ্রো থেকে ক্রোয়েশিয়া-স্লোভেনিয়া হয়ে সেনজেনভুক্ত রাষ্ট্রে। অনেক ক্ষেত্রে তুরস্ক থেকে বুলগেরিয়া হয়ে রোমানিয়া অথবা ইউক্রেন হয়ে হাঙ্গেরি কিংবা বুলগেরিয়া থেকে সার্বিয়া হয়ে হাঙ্গেরি অথবা ক্রোয়েশিয়া নেওয়া হয়।

 

আরও জানান, বলকান দেশগুলোকে ঘিরে ইউরোপে মানব পাচারের বিশাল নেটওয়ার্ক রয়েছে। হেঁটে, ঘন বন-জঙ্গল পাড়ি দিয়ে কিংবা পাহাড় বেয়ে এমনকি খরস্রোতা নদীতে সাঁতরে রাতের অন্ধকারে কাঁটাতারের সীমানা পার হয়ে ইউরোপে ঢোকেন। এসব যাত্রায় অর্ধাহারে কিংবা অনাহারে এমনকি গাছের পাতা খেয়েও দিন পার করতে হয় অভিবাসন প্রত্যাশীদের। এ ছাড়া উজবেকিস্তানের হয়ে ইউরোপে মানব পাচারের নতুন রুট হিসেবে ব্যবহার হচ্ছে।

 

এ ছাড়া বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়া পাচারের জন্য কক্সবাজার উখিয়ার জালিয়াপালংয়ের বাদামতলী ঘাট, রেজুরমোহনা, ইনানী, চেপটখালী, মনখালী, মাদারবনিয়া, চোয়াংখালীসহ একাধিক ঘাট সংলগ্ন এলাকায় মানব পাচারকারীদের বড় আস্তানা রয়েছে। এসব স্থানে ভাগ্যান্বেষীদের এনে রাতের আঁধারে ডিঙ্গি নৌকায় গভীর সাগরে অপেক্ষমাণ ট্রলারে তোলা হয়। ট্রলারে সমুদ্রপথে নেওয়া হয় মালয়েশিয়ার উপকূলে। ঢাকা থেকে সরাসরি বিমানে জাকার্তায় নিয়ে ইন্দোনেশিয়ার পাচারকারীদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। তারা সেখান থেকে মালয়েশিয়া ও অস্ট্রেলিয়ায় পাচার করে। এর মধ্যে ইন্দোনেশিয়ার মেদান থেকে কয়েক দফায় বিপুলসংখ্যক বাংলাদেশিকে আটক করে পুলিশ।

 

৩০ জুলাই ২০২১
এনএইচ

Leave a Reply

আরও পড়ুন...

ফেসবুকে আমরা…

আর্কাইভ