11 C
London
July 15, 2024
TV3 BANGLA
যুক্তরাজ্য (UK)

যুক্তরাজ্যের নির্বাচনঃ বড় জয় পাচ্ছে লেবার পার্টি বলছে কনজারভেটিভ

বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে যুক্তরাজ্যের নির্বাচন। নির্বাচনের একদিন আগেই পরাজয় স্বীকার করে নিয়েছে বর্তমান ক্ষমতাসীন দল কনজারভেটিভ। ব্রিটেনের কনজারভেটিভ পার্টি বলছে, কিয়ার স্টারমারের নেতৃত্বাধীন বিরোধী দল লেবার পার্টি রেকর্ড জয়ের পথে রয়েছে।

ভোটকেন্দ্র খোলার আগেই বুধবার কনজারভেটিভ এ পরাজয় স্বীকার করেছে বলে জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা রয়টার্স।

জনমত জরিপে দেখা যায়, ভূমিধস জয়ের পথে রয়েছে মধ্য বামপন্থী দল লেবার পার্টি। বৃহস্পতিবারের ভোটে বড় জয় পেলে ১৪ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটবে লেবার পার্টির। জয় পেলে শুক্রবার সকালে স্টারমার হবেন ব্রিটেনের নতুন প্রধানমন্ত্রী। তার কাছেই ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিট অফিসের চাবি হস্তান্তর করা হবে৷

স্টারমার এবং বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক উভয়ই ভোটের আগে প্রচারের শেষ দিনে ভয়ঙ্কর অর্থনৈতিক পরিণতির জন্য ভোটারদের সতর্ক করে একে অপরের বিরুদ্ধে বক্তব্য দিয়েছেন। কিন্তু, জরিপে পার্টির ইতিহাসে সবচেয়ে খারাপ ফলাফলের ভবিষ্যদ্বাণীর মুখোমুখি হয়ে কনজারভেটিভরা ক্ষতির কমানোর দিকে বেশি নজর দিয়েছেন। এখন লেবার সরকারের কার্যকর বিরোধীতার জন্য পর্যাপ্ত আসন পাওয়ার দিকেই লক্ষ্য রয়েছে কনজারভেটিভদের।

কনজারভেটিভ মন্ত্রী মেল স্ট্রাইড বিবিসিকে বলেছেন, ‘আমি পুরোপুরি স্বীকার করি যে জরিপে যে ফলাফল দেখা যাচ্ছে তার মানে আগামীকাল ভোটে ভূমিধস সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে যাচ্ছে লেবার পার্টি। এই দেশে এখন পর্যন্ত দেখা সবচেয়ে বড় সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে যাচ্ছে লেবার পার্টি।’

মেল স্ট্রাইড বলেন, ‘সুতরাং এখন যা গুরুত্বপূর্ণ তা হল আমাদের কী ধরনের বিরোধী দল গঠন করতে যাচ্ছি, সংসদে সরকারকে চাপে রাখতে কী ধরনের ক্ষমতা অর্জন করতে পারবে কনজারভেটিভ।’

স্ট্রাইডের মন্তব্য সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হলে ঋষি সুনাক আইটিভিকে বলেন, ‘আমি প্রতিটি ভোটের জন্য কঠোর লড়াই করছি।’

সার্ভেশনের পোলিং বিশ্লেষণে দেখা যায়, পার্লামেন্টে লেবার পার্টি ৬৫০টি আসনের মধ্যে ৪৮৪টি আসন পেতে যাচ্ছে। আর এর মাধ্যমে ১৯৯৭ সালে লেবার পার্টির সাবেক নেতা টনি ব্লেয়ার ৪১৮ টি আসন পেয়ে যে ভূমিধস বিজয় পেয়েছিল সেই রেকর্ড ভাঙতে যাচ্ছেন স্টারমার। এটি ইতিহাসের রেকর্ড।

অন্যদিকে ওই জরিপে বলা হয়েছে কনজারভেটিভরা মাত্র ৬৪টি আসন জিততে পারে। যা ১৮৩৪ সালে দলটি প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকে সবচেয়ে কম আসন হবে। অন্য বিশ্লেষণে বলা হয়েছে, লেবার পার্টির জয়ের ক্ষেত্রে ছোট ব্যবধান দেখানো হয়েছে। সব বিশ্লেষণেই সামগ্রিক ফলাফল লেবার পার্টিকেই জয় দেখানো হয়েছে।

প্রায় দেড় মাসের নির্বাচনী প্রচারণা শেষে দেশজুড়ে কাল সকাল ৭টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত একটানা ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এই নির্বাচনে কনজারভেটিভ পার্টি, লেবার পার্টি, লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি, গ্রিন পার্টি, রিফর্ম পার্টি, স্কটিশ ন্যাশনালিস্ট পার্টিসহ ছোট–বড় অন্তত ৯৮টি রাজনৈতিক দল অংশগ্রহণ করছে। হাউস অব কমন্সের ৬৫০টি আসনের বিপরীতে রাজনৈতিক দলগুলোর মনোনীত, স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ এই নির্বাচনে রেকর্ডসংখ্যক ৪ হাজার ৫১৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

সূত্রঃ রয়টার্স

এম.কে
০৪ জুলাই ২০২৪

আরো পড়ুন

যুক্তরাজ্যে আশ্রয় আবেদনের সিদ্ধান্ত দ্রুত নিতে গিয়ে রিফিউজ করছে হোমঅফিস

ইতিহাসের দীর্ঘতম মন্দার মধ্যে পড়তে যাচ্ছে যুক্তরাজ্য

রমজানে ব্রিটেনে সেহরি ও ইফতারের সময়সূচী

অনলাইন ডেস্ক