11.5 C
London
June 23, 2024
TV3 BANGLA
যুক্তরাজ্য (UK)

যুক্তরাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো পিছিয়ে পড়ছে গ্লোবাল লিগ টেবিলে

ইউকের বিশ্ববিদ্যালয়গুলি সারা বিশ্বের বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্লোবাল লিগ টেবিল র‍্যাংকিংয়ে পিছিয়ে পড়ছে বলে দ্য গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে জানা যায়।

ইম্পেরিয়াল কলেজ অব লন্ডন বিশ্বের সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে দ্বিতীয় স্থানে ছিল যদিও অর্থনৈতিক সংকট ও বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে যুক্তরাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো বর্তমানে সংগ্রাম করে যাচ্ছে।

ইম্পেরিয়াল কলেজ অক্সফোর্ড এবং হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় হতে এগিয়ে এসেছে র‍্যাংকিংয়ে। কিউএস র‍্যাংক অনুযায়ী একমাত্র ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি (এমআইটি) তাদের আগে ছিল বলে জানা যায়।

তবে সামগ্রিকভাবে র‍্যাংকিংয়ের টেবিলের দিকে লক্ষ্য করলে দেখা যায় যুক্তরাজ্যের প্রতিষ্ঠানগুলি মারাত্মকভাবে পিছিয়ে পড়ছে। কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় দ্বিতীয় থেকে পঞ্চম স্থানে নেমেছে। এই বছর ৯০ টি ব্রিটিশ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ৫২ টি কম র‍্যাংকিং পেয়েছে।

ইম্পেরিয়াল কলেজ সহ মাত্র ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের রেটিং উন্নত হয়েছে। ইউনিভার্সিটি কলেজ অব লন্ডন গত বছরের মতো তাদের নবম স্থান ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছে।

কিউএসের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট বেন সোয়েটার বলেছেন, যুক্তরাজ্যের কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয় বর্তমান তহবিল নীতিমালার কারণে বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়েছে। কর্মী ও শিক্ষার্থী অনুপাত, কাজের ফলাফল এবং গবেষণা সহ বিভিন্ন কারণে বিশ্ববিদ্যালয় গুলো তাদের একাডেমিক অবস্থান হারাতে শুরু করেছে।

ইম্পেরিয়াল কলেজ অব লন্ডনের প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক হিউ ব্র্যাডি বলেন, ইমপেরিয়াল কলেজ অব লন্ডনের র‍্যাংকিং তার বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মী এবং শিক্ষার্থীদের শক্তি ও জ্ঞানের একটি “দুর্দান্ত” প্রতিচ্ছবি। পশ্চিম লন্ডনের হোয়াইট সিটিতে একটি নতুন ক্যাম্পাস অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। যার ফলে বিশ্ববিদ্যালয় আরো বেশি প্রসারিত হয়েছে।

প্রফেসর ব্র্যাডি আরো বলেন, ২০১৬ সাল থেকে যুক্তরাজ্যের স্থানীয় শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি স্তরকে থমকে দেয়া এবং আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের ভিসা সীমাবদ্ধকরণ বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষতি করেছে। আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের যুক্তরাজ্যে আসার ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধকতা প্রতিভাবান শিক্ষার্থী ও গবেষকদের দূরে ঠেলে দিয়েছে। যার কারণে শিক্ষাক্ষেত্রে যুক্তরাজ্যের সাফল্য ঝুঁকির মধ্যে পড়তে পারে।

উল্লেখ্য যে, কিউএস ওয়ার্ল্ড র‍্যাংকিং অনুযায়ী বিশ্বের ১০০ টি দেশের প্রায় ১৫০০ বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রমানুসারে তালিকা প্রণয়ন করা হয়। গবেষণা, পাঠদান এবং স্নাতক কর্মসংস্থানের ভিত্তিতে এই তালিকা চুড়ান্ত করা হয় বলে তথ্যমতে জানা যায়।

সূত্রঃ দ্য গার্ডিয়ান

এম.কে
০৫ জুন ২০২৪

আরো পড়ুন

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে পূর্ব লিসেস্টারের বিশৃঙ্খলা, গ্রেফতার ২

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাজ্যে সরকার,ইউনিয়ন মুখোমুখি

ইরানের কারাগার থেকে মুক্ত হয়ে দেশে ফিরলেন ব্রিটিশ নাগরিক